মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

এক নজরে দোহাজারী ইউনিয়ন

 

এক নজরে দোহাজারী ইউনিয়ন পরিষদ

 

চন্দনাইশ থানা সদর থেকে প্রায় ১০ থেকে ১২ কিলোমিটার দক্ষিণ পূর্ব দিকে শঙ্খ নদীর গা ঘেঁষে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী দোহাজারী ইউনিয়ন পরিষদ। দোহাজারী ইউনিয়নটি ৮টি গ্রাম নিয়েগঠিত। যথাক্রমেদোহাজারী,চাগাচর,ঈদপুকুরিয়া,জামিজুরী,দিয়াকুল,রায়জোয়ারা,কিল্লাপাড়া,বারুদখানা গ্রাম।ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আবদুল্লা আল নোমান বেগ। দোহাজারী ইউনিয়নের মোট আয়াতন ৮ হাজার ১শ ৫ একর। মোট জনসংখ্যা ২০১০ সালের  আদম শুমারী রিপোর্ট অনুযায়ী ৫০ হাজার  জন। এর মধ্যে পুরুষের সংখ্যা ২৮ হাজার ৭ শ ৮৫ জন এবং মহিলা ২১ হাজার ২ শ ২০ জন। এখানে উচ্চ বিদ্যালয়ের রয়েছে ৪টি,নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ১টি,প্রাথমিক বিদ্যালয় ৯টি, সিনিয়র মাদ্রাস (ফাজিল) ২টি, কওমি মাদ্রাসা ১টি, কারিগরি কলেজ ১টি, মসজিদ ২৪টি, হিন্দু-বৌদ্ধ মন্দির রয়েছে ১০টি, তন্মেধ্যে ১টি সরকারী, ২টি বৃহৎ মুরগীর ফার্ম, ডাকঘর-১টি ,ফরেস্ট অফিস -১টি,সরকারি বেসরকারি ব্যাংক ১২টি,লবণ মিল ৬টি,টেলিফোন একচেঞ্জ ১টি, বিদ্যুৎ অফিস ১টি, সিনেমা হল ২টি,খেলার মাঠ ১টি, কোল্ড ষ্টোর ২টি, বিএডিসি অফিস ১টি,সড়ক ও জনপথ উপ-প্রকোশলীর কার্যালয় ১টি,অভ্যন্তরীন নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ ডেকা চেইন ১টি,৩৩ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল ১টি,কমিউনিটি ক্লিনিক ৪টি।দক্ষিণ চট্টগ্রামের প্রাণকেন্দ্র দোহাজারী। ঐতিহাসিক গ্রামটি ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় বেশ ভূমিকা রেখেছিল। দুই হাজার সৈন্য থেকে  দোহাজারী নামের উৎপত্তি হয়েছে। কিল্লাপাড়ায় যুদ্ধের কিল্লা ছিল।  বারুদখানায় বারুদের ঘাঁটি ছিল। দোহাজারী মূলত কাঠ,কাচাঁ তরকারি, পেয়ারা,পর্যটনের জন্য জন্য প্রসিদ্ধ।

ছবি



Share with :

Facebook Twitter